আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনায় মৃত্যুবরণকারী বিচারক ফেরদৌস আহমেদের দাফন জামালপুরে সম্পন্ন

মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ জামালপুরঃ

প্রতিনিধি করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী লালমনিরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ফেরদৌস আহমেদের দাফন জামালপুরে নিজ এলাকায় সম্পন্ন হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জামালপুর শহরের দেওয়ানপাড়া টেনিস ক্লাব মাঠে মরহুমের জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানাজা নামাজে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব মির্জা আজম, জামালপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. জুলফিকার আলী খাঁন, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রফিকুল ইসলামসহ মরহুমের আত্মীয়-স্বজন ও শুভানুধ্যায়ীরা অংশ গ্রহণ করেন। এরপর পৌর কবরস্থানে মরদেহ দাফন করা হয়েছে। দাফনকার্য সম্পন্ন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ জামালপুর জেলা শাখার স্বেচ্ছাসেবক টিম।

স্বেচ্ছাসেবক টিম প্রধান আলহাজ্ব মতিউর রহমান, সমন্বয়কারী মুফতি মোস্তফা কামাল, সদস্য মুফতি সালেহ আহমাদ, হাফেজ মাওলানা মাসুম মুশফিক, মাসুদ হাসান ফরিদ, আবু শুয়াইব রুহিত, আশেক মাহমুদ, আব্দুল্লাহ আল মাসউদ ও হামিদুর রহমান ওই দাফনকার্য সম্পন্ন করেছেন । উল্লেখ্য, বুধবার (২৪ জুন) রাত ৮টার দিকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ( সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফেরদৌস আহমেদ ইন্তেকাল করেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে এটাই প্রথম কোনো বিচারকের মৃত্যু।

গত ৪ জুন করোনায় আক্রান্ত হবার পর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ঢাকায় সিএমএইচে ভর্তি করা হয়েছিল। ফেরদৌস আহমেদ জামালপুর জিলা স্কুলের শিক্ষক আলহাজ¦ আব্দুল জলিল-এর দ্বিতীয় পুত্র। বাড়ি জামালপুর শহরের দেওয়ানপাড়া এলাকায়।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে, দুই কন্যা, দুই জামাতা, আত্মীয়-স্বজন ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মহান আল্লাহ তাআলা মরহুম কে যেন জান্নাতবাসী করেন এ জন্য সকলের নিকট দোয়া কামনা করেছেন

Comments are closed.

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন