আজ ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

জিয়াউর রহমান জিয়া বি এন পির নেতা থেকে বণে গেলেন মাদক সম্রাট।

 
চট্টগ্রাম নগরী ডাবল মুরিং থানাধীন এলাকায় ২৮ ওয়ার্ডের বাসিন্দা জিয়াউর রহমান জিয়া, বর্তমানে ইয়াবা সম্রাট বলে পরিচিত। অসামাজিক কার্যকলাপে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসী- এবং তার অপকর্মের ইতিকথা মাদক জগতের সম্রাট এবং রাজনৈতিক সহিংসতায় অপকর্মে একাধিক মামলার অভিযোগ রয়েছে মাদক ও হরতালে বিস্ফোরণ চার্জশিটভুক্ত আসামী বিরুদ্ধে দন্ডবিধি ১৪৩/১৪৯/১৫৩/৪২৭ ধারায় গঠন হয়েছিল। জিয়াউর রহমান জিয়া, অপকর্ম অসামাজিক কার্যলিপ্ত তুলে ধরা মাত্র চেষ্টা। জিয়া শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী, মদ ব্যবসা, চাঁদাবাজি ও জমি দখলে, চোরা কারবারি, একটি সূত্রে জানা যায়, তার একটি সন্ত্রাস বাহিনী রয়েছে, যে বাহিনীর পরিচালক জিয়া নিজেই,তার বাহিনী দিয়ে সরাসরি টেকনাফ থেকে ইয়াবা মত মাদক পতিতার মাধ্যমে নিয়ে আসে পাঠানটলীতে, যে মাদক বর্তমান যুব সমাজের ধ্বংসের মূল কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।এবং ২৮ নাম্বার ওয়ার্ড পাঠানতলীতে অনেকগুলো ভবন রয়েছে, যা তিনি দেহ ব্যবসা সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন,এমন কোন অবৈধ ব্যবসা করে না আর বাকি নাই। পাঠানটলী এলাকাবাসী তার জোড়জুলুম ও অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায় না। এবং এলাকার কিছু বিএনপি’র নেতা-কর্মী আশ্রয়-প্রশ্রয় এ দেহ ব্যবসা প্রতিনিয়ত তিনি চালিয়ে যাচ্ছে।জিয়াউর রহমান জিয়া পরিচালনায়- শুক্রবার রাতে পুলিশি অভিযানে আজু শাহ মাজারের পাশে চারতলা ভবনে একটি ফ্লাট থেকে বেশ কয়েকজন তার সহযোগী সহ গ্রেফতার করেন পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় -গত কাল রাত ১০ টায় জিয়াউর রহমান জিয়ার অসামাজিক কার্যকলাপে বাধা দিতে গেলে লাঠিসোটা ও রামদা দিয়ে আক্রমণ চালায় এলাকাবাসী উপর ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন আলমগীর চৌধুরী আলো ও আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এবং আলামগীর চৌধুরি আলোকে মামলাই ফাঁসিয়ে দেওয়ার হুমকিও প্রদর্শন করেন,জোরালোভাবে প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন