আজ ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৩০শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

 
মোঃ নেয়ামত উল্লাহ রিয়াদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ
বড়বোনের সাথে প্রেম চলা অবস্থাতেই দুশ্চরিত্র যুবক সাজ্জাদের নজর গিয়ে পড়ে ছোটবোন ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী তারিনের ওপর (ছদ্মনাম)। প্রথম প্রথম কারণে অকারণে ইঙ্গিতবহ স্পর্শ। কিন্তু কোনরূপ সাড়া না পেয়ে শেষমেশ জোরপূর্বক ধর্ষণের সিদ্ধান্ত। তুলে নিয়ে, টুঁ শব্দটি করলে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে, ৩০ সেপ্টেম্বর সারারাত ধর্ষণ করার পর পরদিন পরিবেশের প্রতিকূলতা আঁচ করতে পেরে ঘটনাস্থল হতে অজ্ঞাত স্থানের উদ্দেশে পালানোর চেষ্টা করেন অভিযুক্ত ধর্ষক সাজ্জাদ। কিন্তু হাল ছাড়েনি রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ এবং সার্কেল এএসপি শামীম আনোয়ার। পালানোর সকল পথ সিল করে দিয়ে ৫ ঘন্টা ব্যাপী নানামুখী তৎপরতা ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সমন্বিত অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছে রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশ।
রাঙ্গুনিয়ার সার্কেল এএসপি শামীম আনোয়ার বলেন অতীতের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে আমরা টিম রাঙ্গুনিয়া অভিযুক্ত ধর্ষকের গ্রেপ্তারের দাবিতে কোনরকম মিছিল,মিটিং, মানববন্ধনের সুযোগ রাখিনি। ধর্ষনের বিষয়টি যখন দেশবাসী জেনেছেন, তার ঢের আগেই আসামি আমাদের খাঁচায়। আশা করি, বিচারিক প্রক্রিয়া পার হয়ে উপযুক্ত ন্যায়বিচারই মিলবে কিশোরী মেয়েটির ভাগ্যে।
সার্কেল এএসপি শামীম আনোয়ার আরো বলেন আমরা শুধু এই বার্তাই দিতে চাই যে, ভুক্তভোগী তারিনের ওপর যে অন্যায় সংঘটিত হয়েছে, তার প্রতিবিধান নিশ্চিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। মাত্রা বড়-ছোট যেমনই হোক, তারিনের সম্মান-সম্ভ্রমহানির বিষয়টি আমাদের কাছে ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন