আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দোছড়িতে নৌকা বঞ্চিত বর্তমান চেয়ারম্যান হাবিবউল্লাহ’র কলাগাছ নিয়ে বিশাল শোডাউন

মো. মুবিনুল হক মুবিন, নাইক্ষ্যংছড়ি।

  পার্বত্য বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন দোছড়িতে নৌকার প্রতীক থেকে বঞ্চিত উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বার বার নির্বাচিত সফল চেয়ারম্যান আলহাজ হাবিবুল্লাহর কর্মী সমর্থকদের বিশাল কলাগাছ মিছিলে মূখরিত হয়ে উঠেছে দৌছড়ি ইউনিয়নের জনপদের মানুষ।

   গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার এ দুই দিন টানা শোডাউন ও মিছিলে চাক, মুরুং, ত্রিপুরাসহ বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার কয়েক হাজার পাহাড়ি-বাঙালি এ কলাগাছ নিয়ে ব্যতিক্রমি শোডাউন ও মিছিলে অংশ নেন। 

    বিশেষ করে এ পাহাড়ি জনপদে জনপ্রিয়তার শীর্ষে সাবেক চেয়ারম্যান ও বিএনপির সভাপতি রশিদ আহমদ তার দলবল নিয়ে তার এক সময়ের প্রতিদ্বন্দী আওয়ামিলীগ নেতা হাবিবউল্লাহ'র এ শোডাউনে অংশ নেয়ার বিষয়টি টক অব দ্য দোছড়িতে পরিণত হয়।

  বৃহস্পতিবার কয়েক শতাধিক গাড়ি নিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি হতে রামুর গর্জনিয়া-কচ্ছপিয়া হয়ে বিশাল শোডাউন করে দোছড়ি পৌছে সেখানে উঠান বৈঠকে মিলিত হয়।

   এর পর দিন  শুক্রবার বাদে জুমা দোছড়ি ইউনিয়নের প্রাণ কেন্দ্র বাহিরমাঠ থেকে কুলাচি পর্যন্ত কলা গাছ নিয়ে বিশাল শোডাউন চলে। পরে এটি  ফিরে এসে বাহিরমাঠস্থ দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশের আয়োজন করে ।

    এ সময় বক্তব্য রাখেন, নৌকা প্রতীক না পাওয়া সেই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও দোছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সভাপতি  গত বার নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হাবিবুল্লাহ, সাবেক সফল ও জনপ্রিয় চেয়ারম্যান বিএনপি সভাপতি রশিদ আহমদ, বিশিষ্ট মুরব্বি মোসলেম মেম্বার, সমাজসেবক সালাহউদ্দিন চৌধুরী, মেম্বার নূরুল আলম, মহিলা মেম্বার রেহেনা আক্তার, পাক্কু মুরুং কারবারী মেম্বার, শফিকুর রহমান মেম্বার, ডাক্তার আব্দুল মান্নান, নুরুন নবি, ক্লিনতোয়াই মুরুং, ছেন চাং মুরুং, ছাইলাই মুরুং, কেওলাচিং চাক, মংবা চাক, রেনু ত্রিপুরা, অবিরাম ত্রিপুরা, সত্যরাম ত্রিপুরা, মো. শাহ নেওয়াজ, পাইনপিং মেম্বার সহ অর্ধশত নেতা- কর্মী। 

    এ দিন উপস্থিত কয়েক হাজার কর্মী সমর্থকের অনুরুধে তিনি বাধ্য হয়ে জনগণের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে আবারো নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণা দেন ।

   এ সময় হাবিবুল্লাহ চেয়ারম্যান বলেন, তিনি ৫ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান। তা-ও শেষবারে নৌকা প্রতীক নিয়ে। কিন্তু এবারে তার নাম জেলা থেকে কেন কেন্দ্রে পৌঁছেনি তা নিয়ে তার প্রশ্ন। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। তাকে বঞ্চিত করা হয়েছে জোর করে। তিনি জনগণকে সাথে নিয়ে বিজয়ী বেশে আবারো পরিষদে ফিরে যাবেন।


  তিনি সকলকে ধৈর্য সহকারে কাজ করার আহবান জানান। এসময় তিনি আরো বলেন, দৌছড়ি ইউনিয়নের সর্বস্তরের  পাহাড়ি বাঙ্গালী (জনগণ) যে ভালোবাসা তাকে  দেখিয়েছেন এবং দেখাচ্ছেন তা তিনি তার নিজের রক্ত দিয়ে শোধ করবেন বলেও ঘোষণা দেন এ সময়।

  অপর দিকে স্থানীয়রা জানান, জুমার নামাজের পর  বাহির মাঠ এলাকায় পায়ে হেঁটে গাড়িতে করে হাজারও পাহাড়ি বাঙালি  সমর্থক কলাগাছ লাগিয়ে আর কলাগাছ উচিঁয়ে বাহির মাঠ থেকে বিশাল শোডাউন করে কুলাচি পর্যন্ত যান । এ সময় পাহাড়ের চূড়া ও আশ-পাশ থেকে শত শত নারী পুরুষ এ শোডাউনকে হাত নেড়ে স্বাগত জানান। 

সংবাদ প্রেরক-
মো. মুবিনুল হক মুবিন ,
নাইক্ষ্যংছড়ি,
মোবাইল নং- ০১৬৯০১২৮৩৮২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন