আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে চট্টগ্রামে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদে-মিলাদুন্নবী

মোঃ রিয়াদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে বন্দর নগরীর চট্টগ্রামে পালিত হচ্ছে পবিত্র ঈদে- মিলাদুন্নবী
রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখ সোমবার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব ও শেষ নবী হযরত মুহাম্মদ (ﷺ) জন্মগ্রহণ করেন। ১২ই রবিউল আউয়াল সমগ্র বিশ্বে মুসলমানদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ একটি দিন। মুসলমান সম্প্রদায় দিনটিকে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (ﷺ) হিসেবে পালন করে। ভ্রাতৃত্ব, বিশ্বশান্তি, ন্যায় ও মানবকল্যাণের পথপ্রদর্শক মহানবী হযরত মুহাম্মদ (ﷺ)( সঃ)

এই বিশেষ ও পবিত্র দিনে প্রতি বছরের মতো এবারও বন্দরনগরী চট্টগ্রামে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসলমানের অংশগ্রহণে মহিমান্বিত হবে জুলুসে। এশিয়ার বৃহত্তম এই এই ধর্মীয় শোভযাত্রা শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রেখেই পালিত হচ্ছে।

বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষে মহান আল্লাহ তা’য়ালা নবী করীম (ﷺ) কে শান্তির দূত হিসেবে পৃথিবীতে প্রেরণ করেছিলেন। ইসলামের এই মর্মকথা স্মরণে রেখে শান্তি সম্প্রীতি ও মানবতা সুরক্ষায় ইসলামের যে মর্মকথা
গুলো আছে তা সত্যিকার অর্থে অনুসরণ ও প্রতিপালন করলেই জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বশেষে সকলের কল্যাণ সাধন হবে। নবী করীম (ﷺ) এর জীবন ও আদর্শ অনুসরণ করে মুসলিম উম্মাহকে জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সম্প্রীতির বন্ধন ও ঐক্যের শক্তিতে বলীয়ান হওয়ায় মূল লক্ষ।

আবহমানকাল থেকে বাংলাদেশের সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন রয়েছে। তাই সেই বন্ধন আরও সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে আল্লাহ তা’য়ালার রহমত কামনায় পবিত্র এ দিবসে সকলকে এবাদত বন্দেগীতে মশগুল থাকেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।

পবিত্র ঈদে- মিলাদুন্নবী উপলক্ষে বাংলাদেশ সাংবাদিক পরিষদ (বিএসপি)র কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভাপতি শরীফউদ্দীন সন্দ্বীপী বলেন আশা করি, সম্প্রীতির এ বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মীয় উগ্রবাদ, জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদের কোন স্থান হবে না। ১২ আউলিয়ার পূণ্য ভুমি চট্টগ্রামে শান্তি ও সম্প্রীতি অব্যাহত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন