আজ ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

অনির্দিষ্টকালের জন্য জাহাজ ভাঙগা বন্ধ কারখানা, বিপাকে 20 হাজার শ্রমিক

তহিদুল ইসলাম রাসেল

ভ্যাট ফাঁকির অভিযোগ এনে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ভাটিয়ারী এলাকার চারটি জাহাজ ভাঙা কারখানায় অভিযান চালিয়ে নথিপত্র ও কম্পিউটার জব্দ করে ভ্যাট কমিশন। এ প্রতিবাদে আজ বুধবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে জাহাজ ভাঙা মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশন। এদিকে কারখানা বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছে অন্তত ২০ হাজার শ্রমিক। উপার্জন নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুর থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ভাটিয়ারি স্টিল শিপব্রেকিং ইয়ার্ড, প্রিমিয়ার ট্রেড করপোরেশন, মাহিনুর শিপব্রেকিং ইয়ার্ড ও এসএন করপোরেশন নামের চারটি জাহাজ ভাঙ্গা কারখানায় অভিযান চালায় ভ্যাট কমিশনের তিনটি দল।

জাহাজ ভাঙা মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ শিপ ব্রেকার্স অ্যান্ড রিসাইক্লার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএসবিআরএ) সহকারী সচিব নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘কোন প্রকার নোটিশ না দিয়ে গতকাল (মঙ্গলবার) অভিযানে আসে ভ্যাট কমিশনের গঠিত তিনটি দল। তারা আমাদের চারটি প্রতিষ্ঠানের কার্যালয় ও কারখানায় অভিযান চালায়। এসময় তারা নথিপত্র ও কম্পিউটার জব্দ করে নিয়ে যান।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল রাতেই সীতাকুণ্ডে সব কটি জাহাজভাঙা কারখানা অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। ফলে আজ বুধবার সকাল থেকে আমাদের সকল কারখানায় জাহাজ কাটিং, স্ক্র্যাপ সরবরাহসহ সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।’

এদিকে সীতাকুণ্ডের ভাটিয়ারীতে ১৫০টিরও বেশি জাহাজ ভাঙা কারখানা রয়েছে। এসব কারখানায় প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি শ্রমিক কাজ করে। তবে কারখানা মালিকদের অনির্দিষ্টকালের জন্য কারখানা বন্ধ রাখার ঘোষণায় বিপাকে পড়েছে অন্তত ২০ হাজার শ্রমিক। কাজ না থাকায় বেশ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন শ্রমিকরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাহাজ ভাঙ্গা কারখানার এক শ্রমিক বলেন, ‘আমরা দিনে এনে দিনে খাওয়া মানুষ। কারখানা চললে আমাদের পেট চলে। এখন কারখানা বন্ধ মানে আমাদের রুজিও বন্ধ। জানি না কি হবে।’

সোহরাব হোসেন নামের আরেক শ্রমিক বলেন, ‘একদিকে বাজারে জিনিসপত্রের দাম নাগালের বাইরে। তার উপর যদি ইনকাম বন্ধ হইয়া যায়, আমাগো সংসার চলবো কি দিয়া।’

চট্টগ্রাম কাস্টম, এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার হাসান মুহাম্মদ তারেক রিকাবদার বলেন, ‘ভ্যাট ফাঁকি দেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোতেই আমরা অভিযান চালাচ্ছি। এটা আমাদের নিয়মিত অভিযানেরই একটা অংশ। আমাদের কাছে তথ্য থাকায় আমরা এই চার কারখানায় অভিযান চালিয়েছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন