আজ ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আ’যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবু লাঞ্ছিত

ফয়সাল আজম অপু, বিশেষ প্রতিনিধিঃ


চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবুকে লাঞ্ছিত করেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মোখলেসুর রহমান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ভিডিও এরই মধ্যে ভাইরাল হয়েছে। পাল্টাপাল্টি বক্তব্য ও স্ট্যাটাসও দেয়া হচ্ছে।

তবে যুবলীগের সেক্রেটারীকে লাঞ্ছিতের বিষয়ে জানতে চাইলে পৌর নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী আলহাজ্ব মোখলেসুর রহমান বলেন, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবু প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে-দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা এবং দলীয় প্রতিক নৌকা বিরোধী কথা বলায় আমি তার বক্তব্য বন্ধ করতে বলে এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সরকারি কলেজ থেকে আনন্দ র‌্যালি বের হয়। র‌্যালি শেষে আব্দুল মান্নান সেন্টু মার্কেটের সামনে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু মুক্ত মঞ্চে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য দিচ্ছিলেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবু।

বাবুর বক্তব্যর মধ্যখানে পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও গ্রামীণ ট্রাভেলস এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোখলেসুর রহমান প্রতিবাদ জানিয়ে প্রথমেই মাইক বন্ধ করে এ ধরণের বক্তব্য না দিতে আহবান জানান।
এ সময় মাউথ পিস কেড়ে নিয়ে তাকে হেনস্থা ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। তাৎক্ষণিক উভয় পক্ষের মধ্যে হট্টগোল ও তীব্র উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব রুহুল আমিনসহ উপস্থিত নেতা-কর্মীদের হস্তক্ষেপে সভার সভাপতি তার বক্তব্য শেষ করেন এবং কেক কেটে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠান শেষ করেন। এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমানুল্লাহ বাবু জানান, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালি শান্তিপূর্ণভাবে শেষ করে আলোচনা সভা শুরু হয়।

নেতৃবৃন্দের বক্তব্য শেষে তিনি সভাপতির বক্তব্য শুরু করেন। বক্তব্যের এক পর্যায়ে তিনি দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে বলেন, “মাননীয় নেত্রী, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীক নৌকা উম্মুক্ত করে দেন। নাহলে যে হারে আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতারা বহিস্কার হচ্ছে, তাতে করে যেন আওয়ামী লীগ ভারতের কংগ্রেসের মত হয়ে না যায়।আমানুল্লাহ বাবু আরও বলেন, দলকে সংগঠিত করতে এবং ত্যাগী নেতাদের মুল্যায়ন করতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ইউনিয়ন নির্বাচনে নৌকা মুক্ত বা উন্মুক্ত করা হোক। বাবুর এ বক্তব্যের পর পরই শুরু হয় হট্টগোল।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতা আয়াত নূর, জেলা মহিলা আ. লীগের সভাপতি আলহাজ্ব সাকিনা খাতুন পারুল ও সাধারণ সম্পাদক হালিমা খাতুন, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ আব্দুল জলিল, সাবেক সভাপতি অধ্যাপক শরিফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ রোকন উজজামান উপস্থিত ছিলেন।

আরও উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আসাফুদ্দৌলা, সাধারণ সম্পাদক লেনিন প্রামাণিক, পৌর যুবলীগের সভাপতি রাকিবুল হাসান বিরু, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই ক্যাটাগরির আরও দেখুন